বিজ্ঞপ্তিঃ

করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় আতঙ্ক নয়, সচেতনতা জরুরি। প্রয়োজন ব্যাতিত জন সমাগম বর্জন করুন। হাত দিয়ে মুখমন্ডল স্পর্শ করা থেকে বিরত থাকুন। কিছুক্ষন পর পর হাত সাবান দিয়ে পরিষ্কার করুন। নিয়মিত পর্যাপ্ত পরিমান পানি পান করুন। জরুরী স্বাস্থ্য পরামর্শের জন্যে, স্বাস্থ অধিদপ্তর প্রদত্ত ১৬২৬৩ অথবা ৩৩৩ নম্বরে যোগাযোগ করুন।

এই মাত্র পাওয়া :
গাজীপুরে ইয়াবা ব্যবসায়ীর কাছে সাংবাদিককে প্রাণনাশের হুমকি থানায় অভিযোগ এমএলএম কোম্পানির সংবাদ প্রকাশ করায় সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে মামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন সোমবার নারীদের স্বাবলম্বী করতে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর উপহার মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয় কর্তৃক সেলাই মেশিন বিতরণ অনুষ্ঠান গাজীপুরে বিএনপি স্বেচ্ছাসেবকদলের উদ্বোগে তারেক রহমানের ৫৬তম জন্মদিন পালন। গাজীপুর অবসরপ্রাপ্ত সশস্ত্র বাহিনী কল্যাণ সংস্থা উদ্যোগে সশস্ত্র বাহিনী দিবস পালিত গাজীপুর মহানগর বিএনপির স্বেচ্ছাসেবক দলের কর্মী সভা অনুষ্ঠিত। ময়মনসিংহ ব্যুরো অফিস হতে জাতীয় দৈনিক মুক্তখবরের প্রতিনিধিদের আইডি কার্ড প্রদান । ময়মনসিংহে মাথার খুলি হাড়সহ গ্রেফতার ১ সাংবাদ কর্মীকে মোবাইল ফোনে গুলি করে প্রাণ নাশের হুমকি। গাজীপুর মহানগর ২২ নং ওয়ার্ডে ধূমপান মুক্ত বাংলাদেশ চাই সোসাইটির মতবিনিময় সভা অনুষ্টিত হয়েছে ।
গাজীপুর শ্রীপুরে শিশু(১২) বলৎকার মামলার প্রধান আসামী মাদ্রাসার শিক্ষক ক্বারী মোঃ মুকবুল হোসেন(৫০)কে গ্রেফতার করেছে র‍্যাব-১

গাজীপুর শ্রীপুরে শিশু(১২) বলৎকার মামলার প্রধান আসামী মাদ্রাসার শিক্ষক ক্বারী মোঃ মুকবুল হোসেন(৫০)কে গ্রেফতার করেছে র‍্যাব-১

গাজীপুর থেকে শেখ মনিরুজ্জামান ।


১। র‍্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‍্যাব) প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে সবসময় বিভিন্ন ধরণের
অপরাধীদের গ্রেফতারের ক্ষেত্রে অত্যন্ত অগ্রণী ভূমিকা পালন করে আসছে। র‍্যাবের সৃষ্টিকাল
থেকে এ পর্যন্ত অপহরণকারী, শীর্ষ সন্ত্রাসী, হত্যা মামলার আসামী, ছিনতাইকারী,
চঁাদাবাজ, প্রতারকচক্র, মাদক ব্যবসায়ী, চোরাকারবারীদের গ্রেফতার করে সাধারণ
জনগণের মনে আস্থা অর্জন করতে সক্ষম হয়েছে। ইতিপূর্বে গাজীপুরের চাঞ্চল্যকর অনেক
ধর্ষণ/গণধর্ষণ মামলার আসামী গ্রেফতার করেছে

র‍্যাব-১। এরই ধারাবাহিকতায় র‍্যাব-১ এর
অধিনায়ক লেঃ কর্ণেল মোঃ মুনির হাসান এর দিক নির্দেশনায় গাজীপুর শ্রীপুর এলাকায়
শিশু বলৎকার মামলার আসামী গ্রেফতারের কাজ শুরু করে র‍্যাব-১।
২। গত ২৮/০৬/২০২০ তারিখ গাজীপুর জেলার শ্রীপুর থানাধীন কেওয়া পশ্চিমখন্ড এলাকার
অধিবাসীর শিশু ছেলে ভিকটিম(১২)’কে মাদ্রাসার শিক্ষক ক্বারী মোঃ মুকবুল
হোসেন(৫০) ভিকটিমকে মসজিদে কোরআন শিক্ষা দিবে বলে তার বাড়ী থেকে ডেকে
নিয়ে আসামী তাহার বসত বাড়ীর ২তলার পশ্চিম পাশের রুমে নিয়ে গিয়ে ভিকটিমকে
স্প্রিড ক্যান ও বিস্কুট কিনে দেওয়ার প্রলোভন দিয়ে তাহার সাথে প্রেম প্রেম খেলার
ছলনা দেখিয়ে ভিকটিমের ইচ্ছার বিরুদ্ধে তার পরিহিত হাফ প্যান্ট খুলে ক্রিম জাতীয় মলম
ব্যবহার করে প্রকৃতির নিয়মের বাহিরে তার পায়ুপথে যৌন সংগম করে এবং একপযার্য়ে
ভিকটিম অসুস্থ্য হয়ে পড়লে তার চিৎকারে আশপাশের লোকজন এগিয়ে আসলে আসামী
মুকবুল দ্রুত পালিয়ে যায়।

ভিকটিম অসুস্থ্য হওয়ায় পরবতর্ীতে ভিকটিমের পরিবার তাকে
স্থানীয় ভাবে চিকিৎসা করান। এই বিষয়ে ভিকটিমের পিতা র‍্যাব-১, গাজীপুর কাযার্লয়ে
এসে জন্য একটি লিখিত অভিযোগ দিয়ে আইনগত সাহায্য কামনা করে। উক্ত অভিযোগের
ভিত্তিতে র‍্যাব-১ এর চৌকস আভিযানিক দল উক্ত আসামীকে গ্রেফতারের লক্ষ্যে সোর্স
নিয়োগসহ র‍্যাবের সকল ধরনের গোয়েন্দা কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছিল।
৩। এরই ধারাবাহিকতায়ঃ গত ০৯ নভেম্বর ২০২০ তারিখ অনুমান ২০.৩০ ঘটিকার সময়
র‍্যাব-১, স্পেশালাইজড্ কোম্পানী পোড়াবাড়ী ক্যাম্প, গাজীপুরের একটি আভিযানিক
দল গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানতে পারেন যে, উপরোক্ত মামলার পলাতক আসামী গাজীপুর
জেলার শ্রীপুর থানাধীন কেওয়া পশ্চিম খন্ড এলাকায় অবস্থান করিতেছে। উক্ত সংবাদের
ভিত্তিতে অত্র কোম্পানীর কোম্পানী কমান্ডার আব্দুল্লাহ আল মামুন, (জি), বিএন এর
নেতৃত্বে সঙ্গীয় ফোর্স সহ বর্ণিত এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে। অভিযানকালে
বলৎকার মামলার মূলহোতা আসামী ১। মোঃ মুকবুল হোসেন(৫০), পিতা-মৃত
আব্দুল হাফিজ, মাতা-মৃত আছিয়া খাতুন, সাং-কেত্তয়া পশ্চিমখন্ড,
থানা-শ্রীপুর, জেলা-গাজীপুর গ্রেফতার করা হয়।

৪। ধৃত আসামীর ভাষ্যমতে, তিনি ২০ বছর যাবৎ সৌদি আরবে ছিলেন, গত ৪/৫ বছর ধরে
বাংলাদেশে এস বসবাস করছেন। ধৃত আসামী পেশায় একজন মাদ্রাসার শিক্ষক। সে গত
২৮/০৬/২০২০ তারিখ গাজীপুর জেলার শ্রীপুর থানাধীন কেওয়া এলাকার ভিকটিম মোঃ
আহসানুল ইসলাম@হৃদয়(১২)’কে বিস্কুট কিনে দেওয়ার প্রলোভন দেখাইয়া তাহার বসত
ঘরে ডেকে নিয়ে প্রেম প্রেম খেলার ছলনা দেখিয়ে ভিকটিমের ইচ্ছার বিরুদ্ধে তার
পরিহিত হাফ প্যান্ট খুলে ক্রিম জাতীয় মলম ব্যবহার করে প্রকৃতির নিয়মের বাহিরে তার
পায়ুপথে যৌন সংগম করে এবং ভিকটিম অসুস্থ্য হয়ে পড়লে আসামী ভিকটিমকে রেখে
দ্রুত পালিয়ে যায় বলে ধৃত আসামী র‍্যাবের জিজ্ঞাসাবাদে স্বীকার করে এবং নিজ মুখে
তার বর্ণনা দেয়। এছাড়াও ধৃত আসামী একাধিক শিশু বলৎকার ঘটনার সাথে জড়িত বলে
সে নিচ মুখে স্বীকার করে। উক্ত আসামী র‍্যাবের হাতে গ্রেফতারের পর শ্রীপুর এলাকার
হাজার হাজার মানুষ আনন্দ উল্লাস করেন।
৫। এই বিষয়ে ভিকটিমের পিতা বাদী হয়ে গাজীপুর জেলার শ্রীপুর থানায় একটি
ধর্ষণ মামলা দায়ের করেন, যার মামলা নম্বর-৩১ তারিখ ০৯/১১/২০২০ ধারা-নারী ও শিশু
নিযার্তন দমন আইন ২০০০ এর (সংশোধনী ২০০৩) এর ৯(১)।

ভালো লাগলে নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2017 msitworld.info
Design BY msitworld